বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৭:৫৩ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ:
যুক্তরাষ্ট্রের কোলে আশ্রয় নিতে ছুটছে ভারত, পাল্টা ব্যবস্থা নিচ্ছে চীন বিশ্বকে অবশ্যই ‘গণতান্ত্রিক’ মিয়ানমারের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে বাড্ডায় জবাই করা যুবকের মরদেহ উদ্ধার করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢামেক হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তার মৃত্যু ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিশ্ব এন্টিমাইক্রোবিয়াল সচেতনতা সপ্তাহ উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ রাজধানীতে প্রেমিকের সঙ্গে অভিমানে প্রেমিকার আত্মহত্যা পাকিস্তানী টেলি-ড্রামায় মাতোয়ারা ভারতের দর্শকরা রোহিঙ্গাদের জোর করে ভাসানচরে পাঠানো হচ্ছে: অ্যামনেস্টি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নতুন ১৬ জন করোনায় আক্রান্ত; জেলায় শনাক্ত সংখ্যা ২৬শ ছাড়ালো

আফগানিস্তানে শান্তি আফগান ও পাকিস্তানি উভয়ের জন্যই সমৃদ্ধি নিয়ে আসবে: ইমরান খান

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় শনিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২০
আফগানিস্তানে শান্তি আফগান ও
আফগানিস্তানে শান্তি আফগান ও পাকিস্তানি উভয়ের জন্যই সমৃদ্ধি নিয়ে আসবে, আফগানদের পর পাকিস্তানিদেরই আফগানিস্তানের শান্তিতে সবচেয়ে বেশি স্বার্থ রয়েছে।
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান শুক্রবার আবারো বলেছেন, আফগানিস্তান সঙ্ঘাতের কোনো সামরিক সমাধান নেই। তিনি বলেছেন, আফগানিস্তানে শান্তি আফগান ও পাকিস্তানি উভয়ের জন্যই সমৃদ্ধি নিয়ে আসবে।
২০১৮ সালে দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথমবারের মতো কাবুল সফর করে ফিরে এসে তিনি টুইটে এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, পাকিস্তানর উপজাতীয় এলাকাগুলো আফগানিস্তানের যুদ্ধে ভয়াবহভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফলে আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হলে তারা উপকৃত হবে।
তিনি বলেন, তার সফর আফগানিস্তানে শান্তির ব্যাপারে পাকিস্তানের প্রতিশ্রুতির আরেকটি ধাপ এগিয়ে যাওয়া। আমি কখনো সামরিক সমাধানে বিশ্বাসী ছিলাম না। এ কারণেই আমি বিশ্বাস করে আছি যে রাজনৈতিক সংলাপের মাধ্যমেই আফগানিস্তানে শান্তি আসতে পারে।
বৃহস্পতিবার ইমরান খান আফগান নেতৃত্বকে আফগানিস্তানে সহিংসতা হ্রাসে পাকিস্তানের পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দেন। তিনি বলেন, দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়নের কথাও বলেন।
উচ্চপর্যায়ের সফর বিনিময়ের মাধ্যমে দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হওয়ার প্রেক্ষাপটে ইমরান খান এক দিনের সফরে আফগানিস্তান যান।
প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানির সাথে যৌথ মিডিয়া বৈঠকে ইমরান খান বলেন, আপনারা যদি মনে করেন, পাকিস্তানের কেউ আপনাদের সহায়তা করতে পারে, তবে আমাদের জানতে দিন। আমরা আপনাদের আশ্বস্ত করছি যে আমরা আমাদের সাধ্যমতো সবকিছু করার চেষ্টা করব।
তিনি বলেন, এই সফরের প্রধান লক্ষ্য হলো আফগান নেতৃত্বকে আশ্বস্ত করা যে সহিংসতা বৃদ্ধি সত্ত্বেও পাকিস্তানের প্রধান উদ্বেগ এখনো আফগানিস্তান শান্তি প্রতিষ্ঠা করা।
পাকিস্তান প্রথমে যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবানের মধ্যে আলোচনার ব্যবস্থা করে দেয়। এর জের ধরে ফেব্রুয়ারিতে দুই পক্ষের মধ্যে চুক্তি হয়। এর ধারাবাহিকতায় আন্তঃআফগান সংলাপ শুরু হয়েছে। এর মাধ্যমে আফগানরা নিজেরাই তাদের সমস্যাগুলো সমাধান করতে সক্ষম হবে।
তবে এই আলোচনা এখন পর্যন্ত কোনো অগ্রগতি হাসিল করতে পারেনি। আফগান সরকার ও তালেবান একে অপরকে দায়ী করছে এই অচলাবস্থার জন্য। অন্যদিকে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিতে সহিংসতা বেড়ে গেছে।
আন্তঃআফগান সংলাপ শুরুর পর ইমরানই শীর্ষ পাকিস্তানি নেতা হিসেবে আফগানিস্তান সফর করলেন। এর আগ দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র জানুয়ারিতে সৈন্য সংখ্যা ৪,৫০০ থেকে কমিয়ে ২,৫০০ করার কথা ঘোষণা করে। সূত্রঃ ডন

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

One thought on "আফগানিস্তানে শান্তি আফগান ও পাকিস্তানি উভয়ের জন্যই সমৃদ্ধি নিয়ে আসবে: ইমরান খান"

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এইরকম আরো খবর দেখুন

© All rights reserved © 2020- SottoSamachar.Com || মানুষের সাথে, মানুষের পাশে।

Search Results

Web result with site link

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102