মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১১:২৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ:
মালয়েশিয়ায় জরুরি অবস্থা জারির প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান রাজার বাসা থেকে ডেকে নিয়ে এক কিশোরকে হত্যার অভিযোগ ফ্রান্সের বিরুদ্ধে জাকারবার্গকে চিঠি লিখলেন ইমরান খান ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাকে বদলে গেছে আরবের শপিংমলের চিত্র ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চালকের হাত-পা বেঁধে অটোরিকশা ছিনতাই! এবার ফরাসি পণ্য বয়কটের ডাক এরদোগানের ওয়েলডিং এর কাজ করার সময় বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে এক ওয়েলডিং মিস্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ট্রলি চালকের মৃত্যু ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নতুন ৬ জন করোনায় আক্রান্ত, জেলায় শনাক্ত ২৪৯৮ জন ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় বিষখালী নদীর চর থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার !

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে খাদ্য বিভাগের জনবান্ধব কর্মসূচি

আতাউর রহমান, জেলা প্রতিনিধি, ঝালকাঠি ।।
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর, ২০২০
চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে খাদ্য
ছবি: নিজস্ব প্রতিবেদক

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে খাদ্য বিভাগের জনবান্ধব কর্মসূচি:

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে খাদ্য বিভাগের জনবান্ধব কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে। ঝালকাঠি পৌর এলাকায় ৩০ টাকা কেজি দরে ভোক্তা পর্যায়ে চাল ও ১৮ টাকা কেজি দরে আটা বিক্রি করছে খাদ্য বিভাগ।

চালের বাজারকে নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য ঝালকাঠি জেলা খাদ্য বিভাগ পৌর এলাকায় ১০ জন ডিলার নিয়োগ করে তাদের মাধ্যমে সপ্তাহের শুক্রবার ব্যতীত অন্য ৬ দিন এই কর্মসূচি চালু রেখেছে।

প্রতিদিন ১ জন ডিলার ১ টন করে চাল বিক্রি করবে এবং পরের দিন এক টন করে আটা বিক্রি করবে।

এই ভাবে ধারাবাহিকতা বজায় রেখে ডিলাররা এই চাল ও আটা বিক্রি করছেন।

ঝালকাঠি জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মোঃ তারভির হোসেন জানান, অক্টোবর মাসে পৌর এলাকায় উক্ত ডিলাররা ১২৫ মে. টন চাল ও ১৩০ মে. টন আটা বিক্রি করবে।

এছাড়া ঝালকাঠি পৌর এলাকায় করোনাকালীন সময়ের মধ্যে ২ মাস ১০ টাকা কেজি দরে ৯ হাজার কার্ডধারী সুবিধা ভোগীদের ২০ কেজি করে ভর্তুকি মূল্যে চাল বিক্রি করেছে সরকার।

তবে, বর্তমানে পৌর এলাকায় ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি বন্ধ রাখা হয়েছে। কিন্তু জেলার ৪টি উপজেলার গ্রামীণ জনপদে প্রান্তিক পরিবারগুলোকে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি চলমান রয়েছে।

ঝালকাঠি জেলায় ৪টি উপজেলায় ৩০ হাজার ৭৬৪টি পরিবারকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি করা হচ্ছে। সরকার ৪১ টাকায় মিল থেকে চাল কিনে ভর্তুকি দিয়ে ১০টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি করছে।

ঝালকাঠি সদর উপজেলায় ৭২০০টি পরিবার, নলছিটি উপজেলায় ১১০৮২টি পরিবার, রাজাপুর উপজেলায় ৮৫৭৬টি পরিবার ও কাঁঠালিয়া উপজেলায় ৩৯০৬টি পরিবার খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির তালিকাভুক্ত। এরা প্রতিমাসে ১০টাকা কেজি দরে ৩০ কেজির প্যাকেট চাল কিনতে পারছেন।

জেলায় এ খাদ্য বন্ধব কর্মসূচির চাল বিতরণের জন্য ইউনিয়ন ভিত্তিক ৬৩ জন ডিলার নিয়োগ করা হয়েছে।

সদর উপজেলায় তালিকাভুক্ত ১৩ জন ভোক্তার মৃত্যুর কারণে তাদের চাল বিতরণ স্থগিত রয়েছে। কমিটি নতুন করে এই ১৩ জনের তালিকা প্রদান করবে।

আরও পড়ুন: জনতার কাছে ট্রলার সহ ৭ গরু ও মহিষ চোর আটক

আরও পড়ুন: বিসিক শিল্পনগরী এখন বিনোদন স্পটে রুপান্তর !

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

One thought on "চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে খাদ্য বিভাগের জনবান্ধব কর্মসূচি"

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এইরকম আরো খবর দেখুন

© All rights reserved © 2020- SottoSamachar.Com || মানুষের সাথে, মানুষের পাশে।

Search Results

Web result with site link

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102