মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন

ঝালকাঠিতে সুগন্ধা বালিকা বিদ‍্যালয়ের দুই সভাপতির দ্বন্ধে ২২ লাখ টাকা অনিষ্ট !

আতাউর রহমান, জেলা প্রতিনিধি, ঝালকাঠি ।।
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
ঝালকাঠিতে সুগন্ধা বালিকা বিদ‍্যালয়ের

ঝালকাঠিতে সুগন্ধা বালিকা বিদ‍্যালয়ের দুই সভাপতির দ্বন্ধে ২২ লাখ টাকা অনিষ্ট:

ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধিঃ

ঝালকাঠি শহরের সুগন্ধা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সাবেক কমিটির সভাপতি শারমীন মৌসুমী কেকা ও বর্তমান কমিটির সভাপতি ছানু গাজীর দ্বন্ধে স্কুলের সামনে নির্মানাধীন একটি মার্কেট ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, এতে ২২ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। দুই সভাপতির সাথে দ্বন্ধের পিছনে নাটের গুরু হিসেবে কাজ করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা রিতা রানী মন্ডল। গত বৃহস্পতিবার ঝালকাঠি পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদারের উপস্থিতিতে নির্মানাধীন তিন তলা ফাউন্ডেশনের এই মার্কেটটি ভেঙ্গে ফেলা হয়।

স্কুলের বিদায়ী কমিটির সভাপতি শারমিন মৌসুমী কেকা দাবি করেন তিনি সভাপতি থাকাকালীন স্কুল কমিটি রেজুলেশনের মাধ্যমে বিদ্যালয়ের গরীব ছাত্রীদের বিনা বেতনে পড়ানোর জন্য স্কুলের সামনের জায়গায় মার্কেট করার সিদ্ধান্ত হয় এবং পৌরসভা থেকে এর প্লানও পাশ করা হয়।

কিন্তু সদ্য নিয়োগ পাওয়া এডহক কমিটির সভাপতি ছানু গাজী ও স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা রিতা রানী মন্ডলের যোগ সাজশে

পৌরসভায় এটাকে অবৈধ স্থাপনা হিসেবে উল্লেখ করে তা উচ্ছেদের আবেদন করা হয়। কিন্তু সব রেজুলেশনেই প্রধান শিক্ষিকা রিতা রানী মন্ডলের স্বাক্ষর রয়েছে। তিনি নিজেই মাটি কেটে এই মার্কেটের উদ্বোধন করেছিলেন। একটি ষ্টলও বরাদ্দ নিয়েছিলেন নিজের নামে।

অথচ এখন তিনি নতুন সভাপতির এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছেন। কেকা আরো অভিযোগ করে বলেন, পৌর মেয়র প্রথমে এই প্লান পাশ করলেও এখন নির্মানের মাঝপথে কেন এটাকে অবৈধ স্থাপনা বলছেন তা বোধগম্য নয়।

এই বিষয় জানতে চাইলে বর্তমান কমিটির সভাপতি ছানু গাজী বলেন, খেলার মাঠ নষ্ট করে মার্কেট করা হচ্ছিল তাই এই অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে। স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা বলেন, তার কাছ থেকে জোরপূর্বক রেজুলেশনে স্বাক্ষর নেয়া হয়েছে।

তবে প্রধান শিক্ষিকার এ বক্তব্য বিশ্বাস করছেননা অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা। অভিভাবকদের প্রশ্ন তার কাছ থেকে জোরপূর্বক স্বাক্ষর নিলে তিনি তখন থানায় জিডি করলেন না কেন? আর তিনি নিজের নামে মার্কেটে ষ্টল বরাদ্দ নিলেন কেন?

স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যারা ইতোমধ্যে এই মার্কেটে ষ্টল বরাদ্দ নিয়েছিলেন, তাদের অপুরনীয় ক্ষতি হবে। এদিকে পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদারও দাবি করেছেন তার কাছ থেকে যে কাগজপত্র দিয়ে নকশা অনুমোদন নেয়া হয়েছিলো তা সঠিক ছিলোনা। তাই নকশা বাতিল করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত আমেরিকা প্রবাসী ডাক্তার রুহুল আবিদ

আরও পড়ুন: আমার বয়স এখন ৭৪, আর কত: মাননীয় প্রধানমন্ত্রী

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

One thought on "ঝালকাঠিতে সুগন্ধা বালিকা বিদ‍্যালয়ের দুই সভাপতির দ্বন্ধে ২২ লাখ টাকা অনিষ্ট !"

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এইরকম আরো খবর দেখুন

© All rights reserved © 2020- SottoSamachar.Com || মানুষের সাথে, মানুষের পাশে।

Search Results

Web result with site link

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102