রবিবার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৩৯ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ:
ব্রাহ্মণবাড়িয়া নার্সিং ইনস্টিটিউটে ১মবর্ষের সাপ্লিমেন্টারি পরিক্ষার্থীদের লিখিত পরীক্ষা শুরু ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ”লায়ন ক্লাবের” উদ্যোগে বিনামূল্যে ডায়বেটিস চেক-আপ ও মাস্ক বিতরণ ২০২০ সাল মালয়েশিয়ায় করোনা মহামারী ছাড়াও রাজনৈতিক উত্থান-পতন ও দোলাচলের বছর বাংলাদেশের এমন কূটনীতি আগে দেখিনি মহানবী (সা:) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশে জাতিসঙ্ঘের উদ্বেগ ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশন থেকে উদ্ধার ব্যক্তি চিকিৎসা অবস্থায় মৃত্যু জয়ের জন্মদিনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলা ছাত্রলীগের দোয়া ও দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ ব্রাহ্মণবাড়িয়া ‘ডিস ব্যবসাকে’ কেন্দ্র করে থানায় একাধিক মামলা, গ্রেফতার হয়নি কেউ! জম্মু ও কাশ্মীরের মুসলিম-হিন্দু জনমিতি: শুমারির সংখ্যা যা বলছে রাখাইনে রেডক্রসের বোটে মিয়ানমার নৌবাহিনীর হামলা, নিহত ১

নদী ভাঙ্গন রোধে ড্রেজিংয়ের বড় প্রকল্প নেয়া হচ্ছে কুড়িগ্রামে- পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক

আতাউর রহমান সবুজ, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি।।
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০
নদী ভাঙ্গন রোধে ড্রেজিংয়ের
ছবি: নিজস্ব প্রতিবেদক

নদী ভাঙ্গন রোধে ড্রেজিংয়ের বড় প্রকল্প নেয়া হচ্ছে কুড়িগ্রামে- পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক:

আতাউর রহমান সবুজ কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ

বন্যার সমস্যা অতীতেও ছিল এখনও আছে ভবিষ্যতেও থাকবে। উজানে যখন বৃষ্টি হয় তখন পানি এ অঞ্চল দিয়ে নেমে বঙ্গপোসাগরে যায়।

ভাটির দেশ হিসেবে সব সময় এটা আমাদেরকে ফেস করতে হয়। নদী ভাঙ্গন প্রসঙ্গে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেন, বন্যার পানির কারণে নদী ভাঙ্গন সহ যে ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে তা রক্ষা করার জন্য বিভিন্ন প্রকল্প নেয়া হয়েছে।

এছাড়াও নদী ড্রেজিংয়ের বড় প্রকল্প নেয়া হচ্ছে। এসব বাস্তবায়ন করতে পারলে বন্যা ও নদী ভাঙ্গনের ক্ষতি থেকে গ্রামবাসী রক্ষা পাবে।

তিস্তায় চীনের প্রস্তাবিত প্রকল্প প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ২১টি প্রকল্প নিয়ে ডোনার কান্ট্রির সাথে কথা বলেছি। এরমধ্যে তিস্তা প্রকল্প নিয়ে চীন আগ্রহ দেখিয়েছে। এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে।

এছাড়াও প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, নদ ও নদীর  ভাঙ্গন রোধে ড্রেজিংসহ বাঁধ নির্মাণ প্রকল্প চলমান রয়েছে। নদী ভাঙ্গন এলাকায় আমাদের প্রকল্প চলমান রয়েছে এবং প্রস্তাবিত প্রকল্প আছে।

এরই মধ্যে ১৩৭৬ কোটি টাকা তিনটি চলমান এবং ৭১৪ কোটি ও ৩৮৩ কোটি টাকার আরো দুটি প্রকল্প রয়েছে। কুড়িগ্রাম-গাইবান্ধায় বন্যার পানি নেমে এসে যে ক্ষতি করছে এটাকে রক্ষা করতে প্রকল্প নেয়া হচ্ছে।

নদী ড্রেজিং এ বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন চলছে এগুলো শেষ হলে মানুষ রক্ষা পাবে এটাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিদের্শনা এবং সেই নিদের্শনা অনুযায়ী আমরা কাজ করছি।

তিনি আরো বলেন, বিগত ১০ বছর পূর্বেও অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো ছিল না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকারের টাকার কোন সমস্যা নেই।

রাতারাতি নদী ভাঙ্গন রোধ করা সম্ভব নয়। প্রকল্প বাস্তবায়নে টেকনিক্যাল কমিটিসহ বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে কাজ করতে সময় প্রয়োজন হয়। তাই তিনি কুড়িগ্রামবাসিকে ধৈর্য্য ধরতে বলেন।

শুক্রবার বিকেলে বৈরি আবহাওয়া উপেক্ষা করে কুড়িগ্রামে ৫ দফা বন্যায় জেলার ধরলা, ব্রহ্মপুত্র এবং তিস্তা নদীর ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শনকালে সদর উপজেলার মোগলবাসা ইউনিয়ের বন্যা কবলিতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক।

পরে তিনি মোগলবাসা, চিলমারী রমনা এবং উলিপুর উপজেলার অনন্তপুর, গুনাইগাছ টি বাঁধের ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করেন।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন ২৭-কুড়িগ্রাম উলিপুর -৩ আসনের মাননীয় এমপি এম,এ মতিন, কুড়িগ্রাম-২ আসনের সংসদ সদস্য পনির উদ্দিন আহমেদ, কুড়িগ্রাম-১আসনের সংসদ সদস্য আসলাম সওদাগর, অতিরিক্ত সচিব মাহমুদুল ইসলাম, বাপাউবো মহাপরিচালক এ.এম. আমিনুল হক, প্রধান প্রকৌশলী উত্তরাঞ্চল জ্যোতি প্রসাদ ঘোষ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী রংপুর পওর সার্কেল আবদুস শহীদ, জেলা প্রশাসক রেজাউল করিম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

আরও পড়ুন: ঝালকাঠি এলজিইডির আওতায় খাল পুনঃখনন ; গ্রামীণ উন্নয়নে ইতিবাচক প্রভাব !

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এইরকম আরো খবর দেখুন

© All rights reserved © 2020- SottoSamachar.Com || মানুষের সাথে, মানুষের পাশে।

Search Results

Web result with site link

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102