শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৭:৫২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ:
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট যেসব সুবিধা পান বাস ও সিএনজি অটোরিকশা সংঘর্ষে এক শিশু নিহত, আহত ৫ ছোট ভাইয়ের জানাজার পর বড় ভাইয়ের মৃত্যু নাগোর্নো-কারাবাখের শেষ প্রদেশেও প্রবেশ করেছে আজারবাইজানের সেনাবাহিনী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নতুন ১২ জন আক্রান্ত, জেলায় ২৬৫৬ জন শনাক্ত কাশ্মীর ইস্যুতে আবারও উত্তপ্ত ভারত-পাকিস্তান দলীয় মনোনয়নের আবেদন ফরম সংগ্রহ করলেন সাবেক মেয়র হেলাল উদ্দিন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চাচাকে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন একটি স্বাধীন, সুসংহত ও টেকসই ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার পক্ষে বাংলাদেশ ওআইসি বৈঠকে জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে যৌথ প্রস্তাব গ্রহণ করেছে বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ মুসলিম দেশগুলো

প্রযুক্তি এবং আফ্রিকার পরবর্তী অধ্যায়!

অনলাইন ডেস্ক ।।
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২০

প্রযুক্তি এবং আফ্রিকার পরবর্তী অধ্যায়:

প্রযুক্তি এবং আফ্রিকার পরবর্তী অধ্যায়, প্রযুক্তির দ্রুত অগ্রগতির এই যুগে পৃথিবীর বেশিরভাগ মানুষ আজ মোবাইল এবং ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত। বর্তমানে যে কেউ খুব সহজেই প্রয়োজনীয় সকল তথ্য ইন্টারনেটে পেতে পারে। কিন্তু আপনি জেনে অবাক হবেন যে, পৃথিবীতে এখনো ৩ বিলিয়নেরও বেশি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে না! শুধু তাই নয়, আমার-আপনার প্রতিদিনের ব্যবহার করা খুব সাধারণ প্রযুক্তি থেকেও তারা বঞ্চিত।

এর অন্যতম প্রধাণ কারণ দারিদ্র। আর একারণে তাদের এমন অবস্থার সম্মুখীন হতে হয়। তবে তাদের এঅবস্থা থেকে মুক্তি দিতে কিছু সেবা আফ্রিকায় বিপ্লব ঘটিয়ে দিয়েছে। আজ তেমন কিছু সেবা সমন্ধে জানব।

আরও পড়ুন: ফ্রি ইন্টারনেটের অভিনব অফার

এমপেসা” একটি মোবাইল ভিত্তিক ব্যাংকিং সিস্টেম, যেটি কিনা আফ্রিকার মানুষদের অর্থ সঞ্চয় করা অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে। এখানে একজন ব্যবহারকারী তার কাছে থাকা অর্থ Mpesa অ্যাকাউন্টে (Mpesa সার্ভিস সেন্টার অথবা রিটেইলারের কাছে) জমা রাখে এবং একটি পিন কোড ব্যবহার করে সেল ফোনের মাধ্যমে অর্থ আদান-প্রদান কিংবা ব্যালেন্স চেক করতে পারে। এক্ষেত্রে প্রতিবার লেনদেনের সময় খুবই কম পরিমাণ চার্জ দিতে হয়।

এটি আফ্রিকায় এতটাই প্রভাব ফেলেছে যে, কোম্পানিটি (২০০৭) চালু হওয়ার মাত্র ৩ বছরের মাথায় সেটি আফ্রিকার সবথেকে সফল মোবাইল ভিত্তিক ব্যাংকিং সার্ভিসে পরিণত হয়েছে।

আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে সৌদি যুবরাজের বিরুদ্ধে মামলা

২০২০ সালের ফোর্বসের একটি আর্টিকেল অনুযায়ী পুরো আফ্রিকাজুড়ে এমপেসার ৪০ মিলিয়ন ইউজার রয়েছে, যেটি কিনা সেখানকার খুব এক বড় সমস্যা দূর করেছে। আর এই সবই হয়ে থাকে একেবারে বেসিক টেক্সট ম্যাসেজিং এর মাধ্যমে।

‘মোজা ওয়াইফাই’, ‘বিআরসিকে’ (BRCK) কোম্পানির একটি পাবলিক ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক, যেখানে নির্দিষ্ট সীমার মধ্যে যে কোন ব্যক্তি বিনামূল্যে ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত হতে পারে, যেখানে একজন ব্যবহারকারী, গান শোনা, ভিডিও দেখা, কিংবা ই-বই পড়ার জন্য সঞ্চিত তথ্য ব্যবহার করতে পারে।

আরও পড়ুন: রোহিঙ্গা গণহত্যার বিষয়টি দাতাদের স্বীকারের আহ্বান

‘মোজা’ প্ল্যাটফর্মটি উভয়ের সুবিধার্থে অন্যান্য কোম্পানিদেরও বিজ্ঞাপনও প্রদর্শন করার সুযোগ দিয়ে থাকে, তা সে ভিডিয়ো, ওয়েবসাইট কিংবা অ্যাপ যাই হোক না কেন। তাছাড়া কোম্পানিটির উপর বেশ কিছু ইনভেস্টমেন্ট’ও রয়েছে।
‘বিআরসিকে’ কেনিয়ার একটি উল্লেখযোগ্য সংস্থা এবং খুব অল্প সময়ের মধ্যে তারা আফ্রিকায় নিজেদের একটি অবস্থান তৈরি করে নিয়েছে। বর্তমানে পূর্ব আফ্রিকায় বিআরসিক’ ২,৭০০ টি স্থানে রয়েছে এবং মাসিক ৭০০,০০০ জনেরও বেশি ব্যবহারকারী তাদের সার্ভিস ব্যবহার করে থাকে। সূূত্র- ওসাম/ প্রযুক্তি ও আফ্রিকা।

আরও পড়ুন: আসিয়ান দুর্বলতা প্রকাশ করে দিয়েছে মিয়ানমারের রোহিঙ্গা সঙ্কট

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এইরকম আরো খবর দেখুন

© All rights reserved © 2020- SottoSamachar.Com || মানুষের সাথে, মানুষের পাশে।

Search Results

Web result with site link

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102