রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১০:০২ অপরাহ্ন

মিলিয়ে যাচ্ছে শনির বলয়

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০২০

সৌরজগতের প্রায় সবগুলো গ্রহ দেখতে একই রকম,যদিও রং এর ভিন্নতা আছে কিন্তু, একটি গ্রহ আছে যাকে সব গ্রহ থেকে আলাদা করে চেনা যায়। দেখতে মনে হয় যেন রাজকীয় কিছু ব্যাপার রয়েছে। এর মূল কারণ হল শনির বলয়ের জন্য। কিন্তু আপনি কি জানেন, শনির বলয় মহাকাশ থেকে ভ্যানিশ হয়ে যাচ্ছে ?

শনির বলয়ের উপাদান মূলত বরফ আর পাথর। বিভিন্ন সময় গ্রহাণুর ধ্বাংসাবশেষ থেকেই তৈরি, এমনটাই ধারণা বিজ্ঞানীদের। আকারেও অনেক বিশাল। বলয়ের বেধ প্রায় ২ লাক্ষ ৮০ হাজার কিলোমিটার, এর মানে হল ছয়টা পৃথিবী পাশাপাশি রাখলে বলয়ের বেধের সমান হবে মাত্র।

এবার আসা যাক শনির বলয় ভ্যানিশ হওয়ার ঘটনায়। শনির বলয় যে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে, এই ঘটনা নতুন নয়। ১৯৮৬ সালে প্রথম জানা যায় এই ঘটনা ভয়েজার মিশন থেকে পাওয়া ডেটা বিশ্লেষণ করে। ওই গবেষণায় দেখান, শনির বলয় বিরতিহীনভাবে বৃষ্টির মতো করে ঝরে পড়ছে শনির গায়ে।

বলয় বৃষ্টি ঘটছে দুই কারণে, সূর্য থেকে আসা অতিবেগুণি রশ্মি এবং ছোট উল্কাপাতের দরুন। অতিবেগুণি রশ্মি ও উল্কা বরফকে বাষ্পীভূত করছে। এই প্রক্রিয়ায় উৎপন্ন পানির অণুগলো আয়নিত। তাই শনির চৌম্বক ক্ষেত্রের সঙ্গে মিথস্ত্রিয়া করে। মিথস্ত্রিয়ার ফলে শনির দিকে পড়তে শুরু করে নিজস্ব কক্ষপথ ছেড়ে। ঘর্ষণে কিছু পানি যায় পুড়ে, বাকিগুলো বৃষ্টির মত করে পড়ে শনির পৃষ্ঠে।

ভয়েজারের পর্যবেক্ষণের সময় হিসাব করা হয়েছিল, প্রায় ৩০ কোটি বছর লাগবে পুরো বলয় ভ্যানিশ হয়ে যেতে। কিন্তু নাসা গর্ডাড স্পেস ফ্লাইট সেন্টারের বিজ্ঞানী জেমস ও’ডোনাফের নেতৃত্বে এক দল গবেষক ২০১৭ সালে একটি গবেষণা প্রকাশ করেন। সেই জার্নালে তারা জানিয়েছেন, বলয় বৃষ্টির গতি আগের ধারণার চেয়ে অনেক বেশি। ১০ কোটি বছরের মধ্যে এই বলয় পুরোটাই বৃষ্টির মত আছড়ে পড়বে শনির পৃষ্ঠে।

এই গবেষক দল হিসাব করে দেখিয়েছে, ঘণ্টায় প্রায় ১০ হাজার কেজি বলয় বৃষ্টি হচ্ছে শনিতে। এই হারে বৃষ্টি হলে মোটামুটি আধা ঘণ্টায় অলিম্পিক সাইজের একটা পুল ভরে যাবে বৃষ্টিতে।

আমরা নিজেদের ভাগ্যবানই বলতে পারি, সৌরজগতের মুকুট শনির বলয় দেখতে পারছি। ১০ কোটি বছর পর শনি আর এই রাজকীয় বলয় মুকুট নিয়ে সৌরজগতে থাকবে না। হয়ে যাবে পৃথিবীর বা অন্য গ্রহের মত সাদাসিধে মুকুটহীন গ্রহে।

 

সূত্র: ইকারাস জার্নাল, নাসা, জিওফিজিকাল রিসার্চ লেটার্স

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এইরকম আরো খবর দেখুন

© All rights reserved © 2020- SottoSamachar.Com || মানুষের সাথে, মানুষের পাশে।

Search Results

Web result with site link

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102