শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৫৭ অপরাহ্ন

হুমায়ূন আহমেদ

সংগৃহীত
  • আপডেট সময় বুধবার, ২৯ জুলাই, ২০২০
হুমায়ূন আহমেদ
ছবি: হুমায়ূন আহমেদ

হুমায়ূন আহমেদ:

হুমায়ূন আহমেদ ১৩ই নভেম্বর ১৯৪৮ সালে নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা ফয়জার রহমান আহমেদ এবং মায়ের নাম আয়শা ফয়েজ। তার পিতা একজন পুলিশ কর্মকর্তা ছিলেন এবং তিনি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে তৎকালীন পিরোজপুর মহকুমার উপ-বিভাগীয় পুলিশ অফিসার (এসডিপিও) হিসেবে কর্মব্যরত অবস্থায় শহীদ হন। তার বাবা সাহিত্যানুরাগী মানুষ ছিলেন। তিনি পত্র-পত্রিকায় লেখালেখি করতেন। বগুড়া থাকার সময় তিনি একটি গ্রন্থও প্রকাশ করেছিলেন। গ্রন্থের নাম দ্বীপ নেভা যার ঘরে। তার মা’র লেখালেখির অভ্যাস না থাকলেও শেষ জীবনে একটি আত্মজীবনী গ্রন্থ রচনা করেছেন যার নাম জীবন যে রকম। তার অনুজ মুহম্মদ জাফর ইকবাল দেশের একজন শিক্ষাবিদ এবং কথাসাহিত্যিক। সর্বকনিষ্ঠ ভ্রাতা আহসান হাবীব রম্য সাহিত্যিক এবং কার্টুনিস্ট। তার বোন হলেন সুফিয়া হায়দার, মমতাজ শহিদ ও রোকসানা আহমেদ।

তার রচিত আত্মজীবনী ও স্মৃতিকথা থেকে জানা যায় যে ছোটকালে হুমায়ূন আহমেদের নাম রাখা হয়েছিল শামসুর রহমান এবং ডাকনাম কাজল। তার পিতা ফয়জুর রহমান নিজের নামের সাথে মিল রেখে ছেলের নাম রাখেন শামসুর রহমান। পরবর্তীতে আবার তিনি নিজেই ছেলের নাম পরিবর্তন করে হুমায়ূন আহমেদ রাখেন। হুমায়ূন আহমেদের ভাষায় তার পিতা ছেলে-মেয়েদের নাম পরিবর্তন করতে পছন্দ করতেন। তার ছোট ভাই মুহম্মদ জাফর ইকবালের নাম আগে ছিল বাবুল এবং ছোটবোন সুফিয়ার নাম ছিল শেফালি। এবং ১৯৬২ থেকে ১৯৬৪ সালে চট্টগ্রাম থাকাকালে হুমায়ূন আহমেদের নাম ছিল বাচ্চু।

হুমায়ূন আহমেদ ১৯৬৫ সালে বগুড়া জেলা স্কুল থেকে মাধ্যমিক ও ১৯৬৭ সালে ঢাকা কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন। ১৯৭০ ও ১০৯৭২ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়ন বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতা দিয়ে তাঁর কর্মজীবন শুরু হয়। কিন্তু সাহিত্য-চর্চার জন্য অধ্যাপনা থেকে স্বেচ্ছায় অবসর গ্রহণ করেন। তিনি প্রায় দুই শতাধিক গ্রন্থ রচনা করেন। তাঁর রচিত উল্লেখযোগ্য উপন্যাস হল: নন্দি নরকে, নীল অপরাজিতা, জয়জয়ন্তী, প্রিয়তমেষু, অয়োময়, এলেবেলে ইত্যাদি।

তাছাড়া তাঁর দ্বারা নির্মিত তিনটি জনপ্রিয় চরিত্র হচ্ছে হিমু, মিসির আলি এবং শুভ্র। যা দ্বারা তিনি প্রচুর বই রচনা করেছেন।

তাঁর নির্মিত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হল: শঙ্খনীল কারাগার, আগুনের পরশমণি, শ্যামল ছায়া, শ্রাবণ মেঘের দিন, ঘেঁটুপুত্র কমলা ইত্যাদি। তিনি একুশে পুরস্কারসহ অসংখ্যা পুরস্কার লাভ করেন।

ক্লোন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ২০১২ সালের ১৯শে জুলাই এই নন্দিত লেখক মৃত্যুবরণ করেন।

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এইরকম আরো খবর দেখুন

© All rights reserved © 2020- SottoSamachar.Com || মানুষের সাথে, মানুষের পাশে।

Search Results

Web result with site link

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102